ইউটিউব টিপসইন্টারনেট টিপ্স

ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করার ওয়েবসাইট!

আসসালামু আলাইকুম। তো আপনারা কেমন আছেন? নিশ্চয়ই ভালো আছেন। আপনারা অবশ্যই বুঝতে পারছেন আজকের টিউনটি হচ্ছে কিভাবে কোন রকম অ্যাপ্স ছাড়া ইউটিউব এর ভিডিও ডাউনলোড করবেন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে।
আমরা অনেকেই অ্যাপস ব্যবহার করতে অনেক বিরক্ত বোধ করি কারণ এতে অনেক রকম  বিরক্তিকর বিজ্ঞাপন থাকে।
তাই, আমি আপনাদের সাথে আজকে আলোচনা করবো কিভাবে কোন রকম অ্যাপস ছাড়াই  ইউটিউব এর যেকোন ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন, যেকোনো কোয়ালিটিতে। তো আর কথা না বারিয়ে শুরু করা যাক।
আমি প্রথমে আপনাদের জন্য ওয়েবসাইট লিস্ট দিচ্ছি যেকোন ওয়েবসাইট আপনি ব্যবহার করতে পারেন।
আপনার ইচ্ছামত এবং সুযোগ-সুবিধা বুঝে বা কোন সাইটের কত স্পিড সেটার উপর নির্ভর করে আপনি যেকোন সাইট ব্যবহার করতে পারেন।
Youtube videos downlaod website
ভিডিও ডাউনলোড করার ওয়েবসাইট
এখানে একটি বিষয় হচ্ছে যে সকল সাইট একই ভাবে কাজ করে। তাই আলাদা আলাদা সাইটের জন্য আলাদা আলাদা পোস্ট এর কোন প্রয়োজন নেই।

ওয়েবসাইট লিস্ট।

যেভাবে অডিও বা ভিডিও ডাউনলোড করেবেন।

  • প্রথমে উপরের যে কোন লিংকে ক্লিক করুন।
  • আপনি যে ভিডিও বা অডিওটি ডাউনলোড দিতে চান সেই ভিডিও বা অডিওটির লিংক ইউটিউব থেকে কপি করবেন অথবা ব্রাউজারের থেকে ইউটিউব লিংক কপি করবেন।
  • যে ওয়েবসাইটে লিংকে ক্লিক করবেন সেই পেজে  প্রবেশ করলে দেখতে পাবেন ইউটিউব লিংক পেস্ট করার জন্য জায়গা রয়েছে সেখানে আপনার কপিকৃত লিংকটি পেস্ট করুন। এবং কনভার্ট বাটনে ক্লিক করুন।
  • এখন দেখতে পাবেন আপনাকে ডাউনলোড করার জন্য অনেকগুলো অপশন বা কোয়ালিটি দেওয়া হয়েছে আপনি পছন্দমতো কোয়ালিটির উপর চাপ দিয়ে ডাউনলোড করে নিতে পারেন।
  • এছাড়া আপনি mp3 তে ক্লিক করে mp3 বা অডিও ডাউনলোড করতে পারেন।

যেভাবে লিংক ইডিট করে খুব সহজে ডাউনলোড করবেন।

  • আপনি যে ইউটিউব এর লিংক কপি করেছেন ওই কপি লিংক এডিট করে “youtube” এর শেষে ডাবল “pp” যোগ করে Go তে চাপ দিলে অটোমেটিক ডাউনলোড অপশন চলে আসবে আপনি কোয়ালিটি সিলেক্ট করে  ডাউনলোড করতে পারবেন।

যদি আপনি ওয়েবসাইট দিয়ে না ডাওনলোড না করতে চান, তাহলে আপনি অ্যাপস আর মাধ্যমে ডাওনলোড করতে পারবেন।

ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করার কয়েকটি সেরা অ্যাপস এর নাম হল, Vidmate, Snaptube, tubemate

আমাদের শেষ কথাঃ

যদি পোষ্টটি  আপনার ভালো লাগে তাহলে অবশ্যই ভালো কমেন্ট করবেন এবং শেয়ার করবেন কারণ একটি আর্টিকেল লিখতে অনেক সময় ব্যয় করতে হয় এবং অনেক তথ্য অনুসন্ধান করতে হয়। ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button